সর্বশেষ:
ঢাকা, আগস্ট ১৫, ২০২২, ৩১ শ্রাবণ ১৪২৯

cosmicculture.science: বিজ্ঞানকে জানতে ও জানাতে
রবিবার ● ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০১০
প্রথম পাতা » মহাকাশ ও মহাবিশ্ব » ফিরে ফিরে দেখা আমাদের এই মহাবিশ্ব - এ. এম. হারুন অর রশীদ
প্রথম পাতা » মহাকাশ ও মহাবিশ্ব » ফিরে ফিরে দেখা আমাদের এই মহাবিশ্ব - এ. এম. হারুন অর রশীদ
৩৩৫ বার পঠিত
রবিবার ● ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০১০
Decrease Font Size Increase Font Size Email this Article Print Friendly Version

ফিরে ফিরে দেখা আমাদের এই মহাবিশ্ব - এ. এম. হারুন অর রশীদ

ফিরে ফিরে দেখা আমাদের এই মহাবিশ্ব - এ. এম. হারুন অর রশীদ
সাহিত্য প্রকাশ থেকে প্রকাশিত
প্রথম প্রকাশ: ফেব্রুয়ারি ২০০১
মূল্য: একশত পঁচিশ টাকা
পৃষ্ঠা সংখ্যা: ১৭৬
প্রচ্ছদ: অশোক কর্মকার
ISBN: 984-465-254-5

আধুনিক বিশ্বসৃষ্টিতত্ত্বের জটিল দিকগুলো বাংলায় সহজভাবে উত্থাপনের দুরূহ প্রচেষ্টায় বিশেষ সাফল্যের পরিচয় রেখেছেন পদার্থবিদ্যার কৃতী অধ্যাপক এ. এম. হারুন অর রশীদ। বিশ্বসৃষ্টির প্রথম পলে যেসব জটিল প্রক্রিয়া সংঘটিত হয়েছিল, তার পরিচয়দানকালে জ্যোতিঃকণা পদার্থবিদ্যার আবিস্কারগুলো ব্যাখ্যা করেছেন তিনি। বিশ শতকে বিজ্ঞানের নব নব আবিস্কারের ধারাবাহিকতা ও দিগন্ত-সম্প্রসারণ যেমন বিশ্লেষণ করেছেন, তেমনি মেলে ধরেছেন আইনস্টাইনের ক্ষেত্র সমীকরণের তাৎপর্য। অভিকর্ষ, কোয়ান্টাম মহাকর্ষ, কৃষ্ণবিবর এবং তারার মৃত্যু হয়েছে তার আলোচনার বিষয়। আর এসবের মধ্যে দিয়ে বিজ্ঞান ও দার্শনিকতার মিলিত দৃষ্টিতে তিনি দেখাতে চেয়েছেন বিশ্বসৃষ্টির রহস্যের তাৎপর্য।
যেহেতু বিষয়টি আধুনিকতম বিজ্ঞানের জটিল অধ্যায়, তাই অতি সরলীকরণের চেষ্টায় বিকৃতির ফাঁদে আটক হওয়ার বিপদ তিনি সজ্ঞানে ও সযত্নে এড়াতে সচেষ্ট হয়েছেন। সেজন্য বিজ্ঞানের গাণিতিক সূত্র ব্যবহারে দ্বিধাবোধ করেন নি, তবে এর ব্যবহার করেছেন একান্ত অপরিহার্য ক্ষেত্রে এবং ন্যূনতম মাত্রায়। বিজ্ঞানমনস্ক পাঠক রচনার এইসব অংশে আগ্রবোধ করবেন নিশ্চয় তবে যারা গাণিতিক অংশ পরিহার করে পাঠে অগ্রসর হবেন তারাও বক্তব্য অনুধাবনে ক্লেশ অনুভব করবেন না। সব মিলিয়ে নির্দ্ধিধায় বলা যায়, বাংলায় বিজ্ঞানচর্চার ক্ষেত্রে এই মৌলিক গ্রন্থ একটি মাইলফলক হিসেবে স্মরনীয় হয়ে থাকবে।





আর্কাইভ

মহাবিশ্বের প্রারম্ভিক অবস্থার খোঁজেজেমস ওয়েব স্পেস টেলিস্কোপের প্রথম রঙীন ছবি প্রকাশ
ব্ল্যাকহোল থেকে আলোকরশ্মির নির্গমন! পূর্ণতা মিলল আইনস্টাইনের সাধারণ আপেক্ষিকতা তত্ত্বের
প্রথম চন্দ্রাভিযানের নভোচারী মাইকেল কলিন্স এর জীবনাবসান
মঙ্গলে ইনজেনুইটি’র নতুন সাফল্য
শুক্র গ্রহে প্রাণের সম্ভাব্য নির্দেশকের সন্ধান লাভ
আফ্রিকায় ৫০ বছর পরে নতুনভাবে হস্তিছুঁচোর দেখা মিলল
বামন গ্রহ সেরেসের পৃষ্ঠের উজ্জ্বলতার কারণ লবণাক্ত জল
রাতের আকাশে নিওওয়াইস ধূমকেতুর বর্ণিল ছটা,আবার দেখা মিলবে ৬,৭৬৭ বছর পরে!
বিশ্ব পরিবেশ দিবস ২০২০
মহাকাশে পদার্পণের নতুন ইতিহাস নাসার দুই নভোচারী নিয়ে স্পেসএক্স রকেটের মহাকাশে যাত্রা